নিকি ডাইং এন্ড প্রিন্টিং কারখানায় গ্যাসের রাইজারে আগুন, ৫ শ্রমিক দগ্ধ

শেয়ার করুন

নিকি ডাইং এন্ড প্রিন্টিং কারখানার অসাবধানতার কারনে গ্যাসের রাইজারে আগুন লেগে ৫ শ্রমিক দগ্ধ হয়েছেন। অগ্নিদগ্ধরা হলেন,বশির,মেহেদী,আলম, নাসির ও হেভেন চাকমা। শনিবার(২২মে)সকালে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের কাঁচপুর নয়াবাড়ি এলাকায় অবস্থিত নিকি ডাইং এন্ড প্রিন্টং কারখানায় এ ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের নারায়ণগঞ্জের উপ পরিচালক (২) মোহাম্মদ তানহারুল ইসলাম নিশ্চিত করে বলেন, ভোরের কোন এক সময় কোন স্পার্ক থেকে গ্যাসের রাইজারে আগুন লেগে গেলে তা নেভাতে গিয়েই ৫জন শ্রমিক দগ্ধ হন। তাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা যায়। এসময় প্রত্যক্ষদর্শী,ডাইংয়ের কর্মকর্তা ও স্থানীয়দের বরাত দিয়ে মোহাম্মদ তানহারুল ইসলাম জানান, ভোরে কারখানাটির গ্যাসের রাইজারে আগুন লাগার সংবাদে আমরা গিয়ে আগুন নেভাই। এসময় আগুনে কেউ দগ্ধ আছে কিনা জানতে চাইলে তারা আমাদের জানায় কেউ দগ্ধ নেই। পরে আবার আগুন লাগার সংবাদে গিয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা জানায় ৫ জন দগ্ধ আছে এবং তারা আগুন নেভাতে গিয়ে দগ্ধ হলে তাদেরকে আল বারাকা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরে সেখানে গেলে জানতে পাই তাদেরকে ঢাকা মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে তারা চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে কারখানার কাউকে পাওয়া যায়নি।

নিকি ডাইং এন্ড প্রিন্টিং কারখানার অসাবধানতার কারনে গ্যাসের রাইজারে আগুন লেগে ৫ শ্রমিক দগ্ধ হয়েছেন। অগ্নিদগ্ধরা হলেন,বশির,মেহেদী,আলম, নাসির ও হেভেন চাকমা।

শনিবার(২২মে)সকালে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের কাঁচপুর নয়াবাড়ি এলাকায় অবস্থিত নিকি ডাইং এন্ড প্রিন্টং কারখানায় এ ঘটনা ঘটে।

ফায়ার সার্ভিসের নারায়ণগঞ্জের উপ পরিচালক (২) মোহাম্মদ তানহারুল ইসলাম নিশ্চিত করে বলেন, ভোরের কোন এক সময় কোন স্পার্ক থেকে গ্যাসের রাইজারে আগুন লেগে গেলে তা নেভাতে গিয়েই ৫জন শ্রমিক দগ্ধ হন। তাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা যায়। 

এসময় প্রত্যক্ষদর্শী,ডাইংয়ের কর্মকর্তা ও স্থানীয়দের বরাত দিয়ে মোহাম্মদ তানহারুল ইসলাম জানান, ভোরে কারখানাটির গ্যাসের রাইজারে আগুন লাগার সংবাদে আমরা গিয়ে আগুন নেভাই। এসময় আগুনে কেউ দগ্ধ আছে কিনা জানতে চাইলে তারা আমাদের জানায় কেউ দগ্ধ নেই। পরে আবার আগুন লাগার সংবাদে গিয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা জানায় ৫ জন দগ্ধ আছে এবং তারা আগুন নেভাতে গিয়ে দগ্ধ হলে তাদেরকে আল বারাকা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরে সেখানে গেলে জানতে পাই তাদেরকে ঢাকা মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে তারা চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে কারখানার কাউকে পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *