বাংলাদেশ নীল, সুনীলের ২

শেয়ার করুন

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ফিরতি লেগের খেলায় কাতারের জসিম বিন হামাদ স্টেডিয়ামে মহারণে নেমেছিল বাংলাদেশ-ভারত। তবে শেষ পর্যন্ত হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে বাংলাদেশকে। গোটা ম্যাচেই আধিপত্য বিস্তার করে খেলেছিল সুনীল ছেত্রিরা।

প্রথমার্ধ গোলশূন্য ব্যবধানে শেষ হলেও দ্বিতীয়ার্ধের ৭৮ মিনিট পর্যন্ত ভারতকে আঁটকে রেখেছিল বাংলাদেশের ডিফেন্স।

তবে ম্যাচের ৭৯ মিনিটের মাথায় ভারতের অধিনায়ক সুনীল ছেত্রির হেডে এগিয়ে যায় ভারত। বলা যায় বাংলাদেশ গোল রক্ষক আনিসুল হক জিকোর ভুলে হজম করতে হয়েছে গোল।

তবে অতিরিক্ত সময়ের প্রথম মিনিটেই আবারও সুনীলের বিচক্ষণতা। অতিরিক্ত সময়ে গোল খেয়ে ২-০ ব্যবধানে হেরে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

ম্যাচের শুরুতে নয় মিনিটের মাথায় রাকিবের করা থ্রো থেকে ডি বক্সে বল পেয়েও সহজ সুযোগ মিস করেন তারিক কাজী।

এরপর ১১ মিনিটের মাথায় বিপিন সিংয়ের লম্বা শট ডি বক্সে পান উদান্ত সিং। তবে সেটা বাংলাদেশ দলের ডিফেন্সের কল্যাণে বেঁচে যায়।

প্রথমার্ধের ৩৬ মিনিটে কর্নার থেকে পাওয়া বল থেকে নিশ্চিত গোল বাঁচিয়ে দেন ১৭ নাম্বার জার্সি-ধারী শাহিদুল। দ্বিতীয়ার্ধে একচেটিয়া বল দখলে নেয় ভারত।

তবে সব মিলে পিছিয়েই ছিল বাংলাদেশ। প্রথমার্ধে ভারতের নেয়া ৬টি শটের পরিবর্তে বাংলাদেশ নিয়েছে ২টি। দ্বিতীয়ার্ধে যা বেড়ে দাঁড়ায় ১৬ আর ৪টিতে। প্রথমার্ধে যেখানে ভারতের টার্গেট শট ছিল ২টি, দ্বিতীয়ার্ধে সেটি হয় ৫টিতে। বিপরীতে বাংলাদেশের সবমিলে ২টি।

গোটা ম্যাচে ৭৪% বল দখলে নেয় ভারত, ২৬% দখল নেন জামাল ভুঁইয়ারা। বাংলাদেশের ৪টি হলুদ কার্ডের পরিবর্তে ১টি হলুদ কার্ড দেখতে হয়।

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ই গ্রুপের খেলায় প্রথম লেগে ২০১৯ সালে ভারতের বিপক্ষে তাদের মাঠে ১-১ গোলে ড্র করেছিল বাংলাদেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *